স্বাধীনতা থাকবে কি না, দুশ্চিন্তায় ফখরুল                 বইমেলায় কামরুল আলম-এর ৫টি বই                 অনার্স ৪র্থ বর্ষের ফল প্রকাশ                 এবার টি-টেন ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট!                 পাপড়ি প্রকাশের উদ্যোগে কুবাদ বখত চৌধুরী রুবেলের ‘হৃদয়জুড়ে ছন্দমালা’ গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব                 যুবলীগের সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত                 জকিগঞ্জের গ্যাস উদগীরণস্থলে প্রশাসনের লাল পতাকা                

সাদকাতুল ফিতর ও আমাদের করণীয়

: সোনার সিলেট ডটকম
Published: 01 07 2016     Friday   ||   Updated: 01 07 2016     Friday
সাদকাতুল ফিতর ও আমাদের করণীয়

মাওলানা মুহাম্মাদ এমদাদুল হক : পবিত্র রমজান মাসের শেষ ১০দিন হলো ইতেকাফের সময়। আল্লাহর ঘরে এসময় আল্লাহর মেহমানগণ হাজির হয়েছেন। নিজের ঘর-বাড়ি, আত্মীয়-স্বজনকে পিছনে ফেলে দুনিয়ার সব ঝামেলো থেকে নিজেকে মুক্ত করে দশদিনের ইতেকাফের নিয়ত করে মাসজিদে অবস্থান  করে থাকেন।

ঈদুল ফেতর সামনে রেখে আজ আমরা সাদাকাতুল ফিতর সর্ম্পকে আলেচনা করব।

সাদকাতুল ফিতর: মৌলিক প্রয়োজনের অতিরিক্ত নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক নর-নারীর উপর সদকাতুল ফিতর ওয়াজিব। এরূপ সম্পত্তি বর্ধনশীল হওয়া জরুরি নয়। গম, গমের আটা, জবের আটা এবং খেজুর ও কিসমিস দ্বারা ফিতরা আদায় করা জায়েজ। গম বা গমের আটা দ্বারা ফিতরা আদায় করলে ১সা (১ কেজি ৬৫০গ্রাম) এবং জব বা জবের আটা কিংবা খেজুর দিয়ে সদকাতুল ফিতর আদায় করলে ১সা (৩ কেজি ৩২৫গ্রাম) দিতে হবে। রুটি, চাউল বা অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য দিয়ে ফিতরা দিতে হলে তার মূল্য হিসাবে দিতে হবে। কিসমিস দিয়ে ফিতরা আদায় করলে ১সা (১ কেজি ৬০ গ্রাম) ফিতরা আদায় করতে হবে।

সাদকাতুল ফিতর ওয়াজিব হওয়ার সময়: ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিক হওয়ার পর এর সময় শুরু হয়। সুবহে সাদিকের পূর্বে কেউ মারা গেলে তার উপর ফিতরা ওয়াজিব হবে না। সুবহে সাদিকের পর কোনো সন্তান জন্ম নিলে কিংবা কেউ মুসলমান হলে তার উপর ফিতরা ওয়াজিব হবে। অনুরূপ কোনো দরিদ্র ব্যাক্তি সুবহে সাদিকের আগে বিত্তশালী হলে তার উপর ফিতরা ওয়াজিব হবে। ধনী ব্যাক্তি এর আগে গরীব হয়ে গেলে তার উপর ফিতরা ওয়াজিব হবে না। ঈদুল ফিতরের দিনের আগে ফিতরা আদায় করা জায়েজ। ঈদুল ফিতরের দিন আদায় না করলে তার পরে আদায় করতে হবে।

ঈদুল ফিতরের দিন ঈদগাহের উদ্দেশ্যে বের হওয়ার আগে ফিতরা আদায় করা মুস্তাহাব। নিজের এবং নিজের নাবালিকা সন্তানের পক্ষ থেকে সদকায়ে ফিতর আদায় করা ওয়াজিব। স্ত্রী এবং বালেগ সন্তানগণ তারা তাদের ফিতরা নিজেরাই আদায় করবে। স্বামী এবং পিতার উপর তাদের ফিতরা আদায় করা ওয়াজিব নয়, অবশ্য দিয়ে দিলে আদায় হয়ে যাবে। নিজ পরিবারভুক্ত নয় এমন লোকের পক্ষ থেকে তার অনুমতি ছাড়া ফিতরা দিলে আদায় হবে না। কোনো ব্যাক্তির উপর তার পিতা-মাতা এবং ছোট  ভাই বোন ও নিকট আত্মীয়র পক্ষ হতে ফিতরা আদায় করা ওয়াজিব নয়। এক ব্যাক্তির ফিতরা একজন মিসকিনকে দেওয়াই উত্তম। তবে একাধিক মিসকিনকে দেওয়া জায়েজ আছে। একজন লোকের উপর যে ফিতরা ওয়াজিব তা একজন মিসকিনকে দেওয়াও জায়েজ আছে।

আমরা অনেকেই ফিতরা দেই। তবে যদি একটু চিন্তা করে দেই, তাহলে তা অনেক সুন্দরভাবে সম্পন্ন করা যাবে। যেমন আমরা যদি যৌথ ৫/৭ জন লোকের পরিবারের ফিতরা একটা পরিবার কে দিয়ে দেই, তাহলে হয়ত তার ঈদের বাজার হয়ে যাবে। এতে পরিবারটির ছেলেমেয়ের পোষাক হয়ে যাবে। আনন্দের সঙ্গে ঈদ কাটাবে। তাই যেন আমরা ঈদের আগে এটি দেওয়ার চেষ্টা করি। আমরা শুধু আটার দামে ফিতরা দেই, কিন্ত খেজুর বা কিছমিছ এর দামে দেইনা কেন? কারণ এগুলোর দাম বেশি। উচিত হচ্ছে সাধ্য মত দেওয়া। নিম্নবিত্তরা আটার দামে দিবে আর বিত্তশালীরা খেজুর বা কিছমিছ এর দামে দিবে।সবাই যদি সস্তা খোঁজেন, তাহলে গরিব ধনীর পার্থক্য থাকেনা। অনেকেই ঈদের দিন ফিতরার হিসাব না করে দশ বিশ টাকা করে অনেককে দেন, কিন্তু তাতে করে আপনার ফিতরা আদায় হবেনা।




Share Button

আর্কাইভ

February 2018
M T W T F S S
« Jan    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728  

Prayer Time Table

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ভোর ৫:১৯
  • দুপুর ১২:১৬
  • বিকাল ৪:১৬
  • সন্ধ্যা ৫:৫৭
  • রাত ৭:১১
  • ভোর ৬:৩১


Developed By Mediait