Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ঠা আগস্ট, ২০২০ ইং | ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল) ২৯°সে

নিয়ন্ত্রণহীন সিলেটের বেসরকারী চিকিৎসা খাত

সোনার সিলেট ডেস্ক।। সিলেটের বেসরকারী চিকিৎসা খাত নিয়ন্ত্রনহীন। হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার এমনকি ফার্মেসীতে কেউ নিয়মনীতি মেনে চলছে না। সরকারের দায়িত্বশীল বিভাগ থাকার পরও কারো কোন তদারকি নেই। সিলেট জেলায় প্রায় দুই শতাধিক বেসরকারী হাসপাতাল, ক্লিনিক এবং ডায়াগনস্টিক সেন্টার থাকলেও ‘হসপিটাল সার্ভিস ম্যনেইজমেন্ট’ এর ওয়েভসাইটে দেখা যায় মাত্র ৭০টি বেসরকারী হাসপাতাল, ক্লিনিক এবং ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অনুমোদন রয়েছে। তা হলে বাকীরা কীভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এ নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায়।
গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সিলেট নগরীর মিরবক্সটুলা এলাকার ‘সিলেট ট্রমা সেন্টার এন্ড স্পেশালাইজড হসপিটাল’ নামক বেসরকারী হাসপাতালে এক রোগীর অর্ধেক অস্ত্রোপচারের পর রোগী ফেলে চলে যান চিকিৎসক। এতে বিপাকে পড়েন ও রোগী ও তার স্বজনরা।
পরে খোজ নিয়ে জানা যায় এই প্রতিষ্ঠানের নেই কোনো অনুমোদন। কেবল ট্রেড লাইসেন্স নিয়েই চলছে হাসপাতালের কার্যক্রম।
বিভিন্ন সূত্রমতে জানা গেছে অধিকাংশ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ডাক্তার নেই। থাকে ডাক্তারের সই করা প্যাড। এই প্যাডে রির্পোট লিখে রোগীকে দিয়ে দেয়া হয়। উপজেলা পর্যায়ে অবস্থা আরো ভয়াবহ। অনেক ফার্মেসীতে ভূয়া চিকিৎসক চেম্বার করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।আবার কেউ কেউ ফার্মেসীর মধ্যে ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মতো পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছেন।
নামে চিকিৎসা সেবা হলেও বেসরকারী হাসপাতালের চিকিৎসা খরচ নিয়ে রোগীদের অভিযোগের অন্ত নেই।

বিষয়টি উপলব্ধি করতে পেরে সিলেট ১ আসনের এমপি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গত ১৫ জুলাই সিলেটের জেলা প্রশাসককে একটি চিঠি দিয়ে বিষয়টি তদন্ত করে দেখার আহ্বান জানান। চিঠিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অতি সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে যে, দেশের কয়েকটি স্বাস্থ্য সেবা নামধারী প্রতিষ্ঠান করােনা চিকিৎসার নামে বিভিন্ন ধরনের ভূয়া টেস্ট রিপাের্টের মাধ্যমে জনগণকে প্রতারিত করছে। আবার অনেকে রােগীদের নিকট থেকে অনেক বেশি অর্থ আদায় করছে। ফলে স্বাস্থ্য সেবা প্রত্যাশীদের মনে ক্ষোভ যেমন বাড়ছে তেমনি সরকারকেও বিব্রত হতে হচ্ছে। এ কারণে এ বিষয়ে আমাদের আরাে সর্তক হওয়া প্রয়ােজন।
তিনি বলেন, সিলেট জেলা ও মহানগরে যে সকল প্রাইভেট হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনিস্টিক সেন্টার পরিচালিত হচ্ছে সেগুলাে অনুমােদিত কি না, এসকল প্রতিষ্ঠানে নিয়ােজিত ডাক্তার, নার্স, ল্যাব টেকনিসিয়ান প্রকৃত সনদধারী কি না বা তাদের পেশা পরিচালনা করার অনুমােদন আছে কিনা এসকল বিষয়সমূহ দ্রুত অনুসন্ধান করুন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন নির্দেশনার পর সিলেটের বেসরকারী চিকিৎসা খাত নিয়ে প্রশাসনের কোন উদ্যোগ এখনও চোখে পড়েনি।

পর্যবেক্ষকমহল মনে করছেন প্রশাসনের তদারকি না বাড়ালে সিলেটেও সাহেদ সাবরিনার জন্ম হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

শ্রমিক নেতা হত্যার প্রতিবাদে উত্তপ্ত সিলেট
মুন্সির গাওঁ তালামীয ইসলামিয়া আঞ্চলিক শাখার পক্ষে সম্মাননা স্বারক প্রদান
সিলেট মুক্ত স্কাউট গ্রুপের ত্রান সামগ্রী বিতরণ
বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিবার ফোরাম, সিলেট মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত
সিলেট-সুনামগঞ্জসহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা
মাশরাফির শারীরিক অবস্থার অবনতি, হাসপাতালে ভর্তির পরিকল্পনা

আরও খবর

Shares