সোনার সিলেট

প্রত্যেক পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হবে: ওবায়দুল কাদের

Published: 20 12 2018   11:40:59 AM   Thursday   ||   Updated: 20 12 2018   11:40:59 AM   Thursday
প্রত্যেক পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হবে: ওবায়দুল কাদের

সোনার সিলেট ডেস্ক।। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণায় বলেছেন, আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় এলে প্রত্যেক পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হবে। তিনি যাহা বলেন, তাহা করেন।’

বুধবার দুপুরে নোয়াখালীর-৫ আসনের কবিরহাট উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নের এক নির্বাচনী পথ সভায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা নারীদের সম্মান দিয়েছেন। আগে সন্তান জন্ম হলে নিবন্ধনে বাবার নাম থাকতো, এখন নিবন্ধনে মায়ের নাম সংযুক্ত করেছেন। এই কাজটি করে আমাদের নেত্রী নারীদের সম্মানিত করেছেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার নোয়াখালী-৫ আসনের ৯৩% এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেছে। বিএনপির নেতা তারেক রহমান বিদ্যুৎ এর খাম্বা ব্যবসা করেছে। মানুষের মাঝে খাম্বা ছাড়া কিছুই দিতে পারে নাই। সব দলের কাছে শুধু একটা কথা নোয়াখালীর দুঃখ হল নোয়াখালীর খাল। সে খালের কাজ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে হচ্ছে। এ কাজের বিনিময়ে আমাকে সকল দলের লোকজন ভোট দিবেন।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিগত বছরগুলোতে সাড়ে ৪ হাজার বেকার যুবকের চাকরির ব্যবস্থা করেছি। আগামীতে নির্বাচিত হলে প্রত্যেক এলাকায় গ্যাস সংযোগ দেওয়া হবে। সোনাপুর জোরালগঞ্জ সড়কসহ এ এলাকায় রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। প্রত্যন্ত অঞ্চলের রাস্তাঘাট বাকি রাখি নাই। গ্রামাঞ্চলের মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার করার জন্য শেখ হাসিনা সরকার কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছে। উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য ডিজিটাল সেবা নিশ্চিত করা হয়েছে। এ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২শত কোটি টাকা ব্যয়ে মুছাপুর ক্লোজারের কাজ শেষ করে এ এলাকার জনগণকে নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে।’

মওদুদ আহমদকে উদ্দেশ্যে করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনাকে কেউ বাধা দিচ্ছে না। আপনি যেখানে যান সেখানে লোক হয় না। জনগণ আপনাকে পছন্দ করে না। মওদুদ আহমদ ঘরে বসে ফেসবুকে কান্নাকাটি করছে তাকে কোথায়ও যেতে দিচ্ছে না, বাধা দেওয়া হচ্ছে কথাটা সত্য নয়। আমি কবিরহাট বিএনপির নেতাকর্মীদের বলছি আপনারা আমার সামনে পোস্টার লাগান, দেখি কে ছিঁড়ে।’

মহাজোটের বিদ্রোহীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনারা অপেক্ষা করুন দ্রুত বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হুশিয়ারি দেওয়ার পরও দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে প্রায় ১৮টি আসনে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এখনও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নরোত্তমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম সিরাজ উল্লার সভাপতিত্বে পথসভায় উপস্থিত ছিলেন- কবিরহাট পৌরসভার মেয়র জহিরুল হক রায়াহান, বাংলাদেশ কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. এ কে এম জাফর উল্লা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রুমি, কবিরহাট পৌরসভার সাবেক মেয়র আলাবক্স তাহের টিটু, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রেজাউল হক শাহীন, বাটইয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি জসীম উদ্দিন শাহীন প্রমুখ।

এসএসডিসি/ কেএ

printars line
সর্বস্বত্ব www.begum24.com কর্তৃক সংরক্ষিত
সোনার সিলেট