১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৬:৪১

জুড়ীর কচুরগুলগ্রামের রাস্তাগুলো দেখার মতো কেউ নাই… !

সোনার সিলেট ডেক্স
  • আপডেট রবিবার, জুন ৬, ২০২১,

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার কচুরগুল গ্রামে লংগরখানায় সাপ্তাহিক বাজার বসে। এইবাজারে পুর্ব কচুরগুলের মানুষের উপজেলা বাজারে যাওয়া-আসার জন্যে ৮ বছরের আগে থেকে একটা পিকআপ স্টেশন আছে। এই বাজারকে কেন্দ্র করে অনেক কাঁচামাল ব্যবসায়ীরা এখান থেকে তাদের পণ্যগুলো সপ্তাহে দুইদিন পিকআপ বা মিনি ট্রাকের মাধ্যমে উপজেলার বাজারে নিয়ে যান। ১৫টা মুদি দোকানী ও দুইজন ডাক্তার এই বাজারে আছেন।তাছাড়া এই রাস্তা ব্যবহার করে প্রতিদিন প্রায় ২০০০ এর বেশি মানুষ। আর এখানে চা বাগানের ট্রাক চা নিয়ে প্রতিদিন দুইবার যাওয়া আসা করে।সবমিলিয়ে এই বাজারকে কেন্দ্র করে অনেক কার্য সম্পাদন হয়ে থাকে। সমস্যাঃ সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার হলো,এই এলাকার রাস্তার অবস্থা একেবারে খারাপ।এখন বর্ষাকাল তাই ব্যবসায়ীরা আর সাধারণ মানুষেরা ভোগান্তিতে পড়ে।এই রাস্তা দিয়ে একটা এম্বুলেন্স ঢুকার কোনো নজির নেই কারণ এই রাস্তার দুরাবস্থার জন্যে। এই রাস্তা দিয়ে বাইরে থেকে আসা অনেক মানুষ ভারতের ত্রিপুরা আর আসাম রাজ্যের বিভক্তির ইন্ডিয়ান ক্যাম্প ও তার চারপাশের প্রকৃতি দেখার জন্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে আসলেও রাস্তার অবস্থা দেখে তারা তাদের উদ্দেশ্য কৃত স্থানে যেতে পারে না। আবার অনেক মানুষ বর্ষাকালে এলাকায় আসার জন্যে ইচ্ছা হারিয়ে ফেলে। পাশের এলাকার কোনো ইমার্জেন্সি রোগিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার জন্যে যে সময় লাগবে এই রাস্তার অবস্থা কারণে তারচেয়ে দ্বিগুণ সময় লাগবে। তাছাড়া আপনারা হয়তো নাও জেনে থাকতে পারেন, এই বাজারের পাশে একটা বেসরকারি স্কুল প্রায় পাঁচবছর ধরে বন্ধ হয়ে আছে যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকার কারণে।উল্লেখ্য কচুরগুল টু নালাপুন্জি রাস্তা কাজ শুরু হলেও আসলে এটি কচুরগুল টু নালাপুন্জির মেইন রোড নয়,মেইন রোড রেখে বিকল্প রাস্তার কাজ শুরু হয়েছে। বৃহত্তর কচুরগুল আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মরহুম হাজি মকবুল আলীর নাতি ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এমরান উদ্দিন বলেন ‘শুনেছি এই কচুরগুল টু নালাপুন্জির রাস্তা নাকি অনুমোদিত হয়েছে অনেক আগে,০৮ নং গোয়ালবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের টানা ০৪(চার) বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন আহমদ লেমন ভাইয়ের ফেসবুক পোস্ট থেকে জানতে পারি এই কচুরগুল টু নালাপুন্জি রাস্তা নাকি মোট ২৭২০ মিটার কিন্তু কাজ শুরু হয়েছে ১৭২০ মিটার রাস্তার। তিনি আরও বলেন মাদার অব হিউম্যানিটি জননেত্রী শেখ হাসিনা জনগণের কল্যাণে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন কিন্তু দায়িত্বশীলদের অবহেলার কারণে আমরা সেই কল্যাণ থেকে বঞ্চিত,আমাদের এই রাস্তাটির কাজ হচ্ছেনা। তিনি আরেকটি কথা উল্লেখ করেন যে,পরিবেশ বনও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় কচুরগুলের লঙ্গরখানা বাজারে অনুষ্টিত ২০১৪ সালের নির্বাচনী জনসভায় কচুরগুলের লঙ্গরখানার রাস্তা তাড়াতাড়ি করে দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। কিন্তু আজও হয়নি তার কাজ। তিনি অনুরুদ্ধ জানান যে রাস্তার কাজ শুরু হয়েছে সেটি শেষ হওয়ার সাথে সাথে যেন লঙ্গরখানার রাস্তা তথা কচুরগুল টু নালাপুন্জি মেইন রোডের কাজ শুরু করা হয়।

এসএসডিসি/বিএম

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2016 Paprhi it & Media Corporation
Developed By Paprhihost.com
ThemesBazar-Jowfhowo