৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যা ৬:০৭

আমি মোটেও নারীবিদ্বেষী না: তানজিম সাকিব

সোনার সিলেট ডেস্ক
  • আপডেট মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩,

কর্মজীবী নারীদের নিয়ে ফেসবুকে ‘বিতর্কিত’ মন্তব্যের জেরে ক্ষমা চেয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের তরুণ পেসার তানজিম হাসান সাকিব। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে এই মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন তিনি। তিনি নারীবিদ্বেষী নয় বলেও জানিয়েছেন।

তানজিম সাকিব বলেন, কাউকে আঘাত করার জন্য ফেসবুকে পোস্ট করিনি। কেউ কষ্ট পেয়ে থাকলে দুঃখিত। আমি মোটেও নারী বিদ্বেষী না।

এদিকে, তানজিম সাকিবের মন্তব্যের জেরে চলা বিতর্কের বিষয়ে কথা বলেছে ক্রিকেট বোর্ড। এ বিষয়ে মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) প্রেস ব্রিফিং করেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, তানজিম সাকিবকে বলা হয়েছে আমরা তাকে মনিটর করবো। তার কোনো সাহায্য লাগলে তাকে সে সাহায্য অবশ্যই প্রদান করবো। যদি কোনো মনোবিদের প্রয়োজন পড়ে সেটিও করবো। শুধু তার বিষয়ে না, যেকোনো খেলায়াড়ের বিষয়ে আমরা এটি করবো।

তিনি আরও বলেন, অন্য ক্রিকেটারদের সমস্যা আমরা কেনো দেখছি না কেন? যেহেতু তারটা সামনে আসছে। তার ইস্যুটাকেই আমরা ফোকাস করছি। আশা করছি ভবিষ্যতে এমন সমস্যা হওয়ার কথা না। খেলোয়াড়রদের জন্য কিছু কোড অব কনডাক্ট আছে, কেন্দ্রীয় চুক্তি আছে। এগুলো তাকে অবগত করা হয়েছে। সে বলেছে এবিষয়ে খুবই সতর্ক থাকবে। ভবিষ্যতে এমন কিছু হবে না।

এক প্রশ্নের জবাবে জালাল ইউনুস বলেন, সে দুঃখিত বলেছে। মানে সে দুঃখিত। তার মধ্যে অনুশোচনা বোধ এসেছে। আর এমন হবে না বলে সে আমাদেরকে জানিয়েছে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক হয় তানজিম সাকিবের। ভারতের বিপক্ষে দুর্দান্ত বোলিংয়ে দুই উইকেট নিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি।
প্রশংসায় ভাসার মধ্যে তার ফেসবুকের কিছু পুরনো ও আপত্তিকর পোস্টও ভাইরাল হয়। পুরনো পোস্টে কর্মজীবী নারীদের প্রতি তার বিষাদগার দেখা যায়। এসব পোস্ট ছড়িয়ে পড়ার পর নারী অধিকার কর্মী ও নারীবাদীরা সরব হয়েছেন সমালোচনায়।

তানজিম গত বছর ফেসবুকে পোস্ট করেন, ‘স্ত্রী চাকরি করলে স্বামীর হক আদায় হয় না, স্ত্রী চাকরি করলে সন্তানের হক আদায় হয় না, স্ত্রী চাকরি করলে তার কমনীয়তা নষ্ট হয়, স্ত্রী চাকরি করলে পরিবার ধ্বংস হয়, স্ত্রী চাকরি করলে পর্দা নষ্ট হয়, স্ত্রী চাকরি করলে সমাজ নষ্ট হয়।’

তার আরেকটি পোস্ট ছিল, ‘ভার্সিটির ফ্রি-মিক্সিং আড্ডায় অভ্যস্ত মেয়েকে বিয়ে করলে আর যাই হোক সন্তানের জন্য একজন লজ্জাশীলা মা দিতে পারবেন না।’ এসব পোস্ট সামনে আসার পর তাকে নিয়ে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি আজ দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2016 Paprhi it & Media Corporation
Developed By Paprhihost.com
ThemesBazar-Jowfhowo