১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৬:৩৯

অনলাইনে লেখালেখির অভিযোগে হাবিব নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার বিরুদ্ধে বিজরা বাজারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট বুধবার, আগস্ট ২৩, ২০২৩,

বনকরা আলোর দিগন্ত সামাজিক সংগঠনের সভাপতি হাবিব সাহেবের বিরুদ্ধে একটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মানহানির মামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে । মামলার বিবাদী হাবিব সাহেবের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে জানা গেছে। পলাশ সিনেমা হল কে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবত কিছু সমস্যা হচ্ছিল। যেমন অভিযোগ উঠেছে ওই সিনেমা হলে ছবি আড়ালে পর্নোগ্রাফি প্রদর্শন করা হচ্ছে । পাশাপাশি ওই সিনেমা হল কে কেন্দ্র করে। মাদকের আসর জমন্ত এবং বিভিন্ন অসামাজিক কাজ এবং অনৈতিক কাজ হয়ে আসছে । ওই এলাকার স্কুল মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্ররা সিনেমা হল কেন্দ্রীক যাওয়া আশা করত। যার ফলে তাদের দ্রুত নৈতিক অবক্ষয় হয়তে ছিল। দীর্ঘদিন যাবত ওই সিনেমা হল কেন্দ্রিক। সকল অপকর্ম বন্ধের জন্য বিভিন্ন মহল থেকে চেষ্টা করা হচ্ছিল।হাবিব এবং তার সংগঠনের কিছু যুবক ওই প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিল। ওই সিনেমা হলের মালিক উপজেলার চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি প্রেরণ করেছিল এবং থানার ওসি এবং ইউনুর কাছেও স্মারকলি বিতরণ করেছে। যাতে অসামাজিক কাজগুলো বন্ধের জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এবং কি তারা একটি মানববন্ধন করেছিল এবং লিফলেট বিতরণ করেছিল। যখন কোন প্রতিকার পাচ্ছিল না। তখন হাবিব facebook আইডি থেকে হাবিব লেখালেখি করে এবং লাইভে যায় এলাকার সর্বসাধারণের মাঝে বিষয়টা সম্পর্কে সচেতন করার চেষ্টা করে এবং প্রতিবাদ জানাই। তার এই অনলাইন লেখালেখির কারণে। বখতিয়ার সাহেব বাদি হয়ে ১৮/০৮/২০২৩ অনলাইনে মানহানির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে। হাবিব সাহেবের পরিবার আরো জানান। যুব সমাজের নৈতিকতার কথা চিন্তা করে এই প্রতিবাদগুলো করে আসছিল। বখতিয়ার সাহেব বা বিশেষ কোনো গোষ্ঠী বা দলকে মানহানি করার জন্য তিনি এই কাজগুলো করেনি।২০/০৮/২০২৩ তারিখে পুলিশ হাবিব সাহেবের বাড়িতে গ্রেফতার করার জন্য আসে হাবিব কে না পেয়ে হুমকি ধমকি দিয়ে যায় এবং হাবিব সাহেব বর্তমানে পলাতক অবস্থায় আছে তার উপরের মামলা যেন দ্রুত প্রত্যাহার করা হয়। পরিবার থেকে এই দাবি জানানো হয়েছে।

এইদিকে ২২/০৮/২০২৩ তারিখে স্থানীয় বিজরা বাজারে এলাকার সচেতন মহলের পক্ষ থেকে এবং বনকরা আলোর দিগন্ত সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে হাবিবের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মানববন্ধনে সচেতন মহল থেকে মাস্টার আব্দুর রশিদ বলেন হাবিব শুধুমাত্র একটি অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছে দীর্ঘদিন যাবত এই এলাকায় নৈতিক অসামাজিক কাজগুলো হয়ে আসছিল তারই বিরুদ্ধে হাবিব প্রতিবাদ জানিয়েছে আমরা তার এই কাজকে সাধুবাদ জানাই এবং পাশাপাশি প্রশাসনের কাছে আবেদন জানাচ্ছি যেন অতি দ্রুত হাবিবের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা মামলাটি তুলে নেওয়া হয়। না হয় এলাকার জনসাধারণকে নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সমাবেশ থেকে আরো একজন বক্তা বনকরা আলোর দিগন্ত সামাজিক সংগঠনের উপদেষ্টা ডাক্তার নাজমুল হাসান বলেন হাবিব আমাদের সংগঠনের সভাপতি দীর্ঘদিন যাবত আমাদের সংগঠনের সামাজিক কাজে যুক্ত আছে হাবিবের বিরুদ্ধে যে মামলাটি আনা হয়েছে। আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে জোর দাবি জানাচ্ছি যেন এই মামলাটি দ্রুত নিষ্পত্তি করা হয়। এবং পলাশ সিনেমা হলে সকল অনৈতিক কার্যকলাপ বন্ধ করা হয়। যদি বন্ধ করা না হয় আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবো। এই বলে বক্তারা তাদের মানববন্ধন সমাপ্ত করে।

মামলা সম্পর্কে উপজেলা চেয়ারম্যান বখতার হোসেন বখতিয়ার সাহেবের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান হাবিবের উস্কানিমূলক লেখালেখির কারণে। আমার মানহানি এবং আমার সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মানহানি ক্ষুন্ন হয়েছে। তাই আমি এ মামলাটি করেছি। হাবিব যে অভিযোগ এনেছে সিনেমা হলের বিরুদ্ধে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট।

উক্ত মামলা সম্পর্কে উপজেলা থানার ওসি জনাব মোজাম্মেল সাহেব জানান উপজেলা চেয়ারম্যান বক্তার হোসেন বখতিয়ার সাহেবের অভিযোগের কারণে আমরা সত্যতা পেয়ে। হাবিব সাহেবের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা নিয়েছি। বর্তমানে হাবিব সাহেব পলাতক আছেন। আমাদের গ্রেপ্তার অভিযান বহত আছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2016 Paprhi it & Media Corporation
Developed By Paprhihost.com
ThemesBazar-Jowfhowo