১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ভোর ৫:৩০

কুমিল্লায় মিথ্যা মামলায় পিতা-পুত্র গ্রেফতার (ভিডিওসহ)

সোনার সিলেট ডেস্ক
  • আপডেট রবিবার, মার্চ ২৭, ২০২২,

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ১২ পাড়া ইউনিয়নের লালমাই গ্রামে মিথ্যা মামলায় পিতা ও পুত্রকে গ্রেফতারের ঘটনা ঘটেছে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা হলেন লালমাই গ্রামের প্রকৌশল মো: শহিদ উল্লাহ এবং তার সন্তান নাজমুল শাহরিয়া দীপ্ত।  নিজের স্বামী ও সন্তানকে সম্পূর্ণ বিনা কারণে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করার অভিযোগ জানিয়েছেন মোসা: নাছিমা বেগম।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয় রাজনীতিবিদ সদর দক্ষিণ থানা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি নূরে আলম সিদ্দিকী স্বপন  ঘটনার সাথে জড়িত। প্রকৌশল মো: শহিদ উল্লাহর স্ত্রী নাছিমা বেগম জানান, নূরে আলম স্বপন এর স্থাপিত নতুন ইন্ডাস্ট্রিতে গ্যাস সংযোগ এর অনুমোদন দেওয়াকে কেন্দ্র করে মাসের পর মাস উনার স্বামী জনাব শহিদ উল্লাহকে নানাভাবে উত্তক্ত করা হচ্ছিল। কিন্ত অনুমোদন না দেওয়াকে কেন্দ্র করে এই ঘটনায় ছেলেকে ও স্বামীকে মিথ্যা মামলায় আটক করা হয়। এমনকি তার কনিষ্ঠ পুত্র নাইমুর রহমান সজীবের বিরুদ্ধেও একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

জানা যায়, প্রকৌশল জনাব মো: শহিদ উল্লাহর সাথে দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় রাজনীতিবিদ সদর দক্ষিণ থানা আওয়ামীলীগ সেক্রেটারি নূরে আলম সিদ্দিকী স্বপন এর ঝামেলা চলছে। নূরে আলম সিদ্দিকী স্বপন কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় পাহাড়ি ভূমি দখল করে ‘সততা পুলস এবং রি রোলিং’ নামক একটি ইন্ডাস্ট্রি স্থাপন করেন এবং এই কারখানায় গ্যাস সংযোগ এর জন্য দীর্ঘদিন ধরেই প্রকৌশল জনাব মো:শহিদ উল্লাহকে নানাভাবে বিরক্ত করে আসছেন। কিন্ত উনার এই ইন্ডাস্ট্রি পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর এবং সরকার কর্তৃক অনুমোদন না থাকায় উনার আবেদন বার বার নাকচ করে দেন। কিন্ত নূরে আলম সিদ্দিকি স্বপন বিভিন্নভাবে প্রোকৌশল জনাব মো: শহিদ উল্লাহকে অনুমোদন দেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। শুরুতে উনি প্রচুর অর্থের লোভ দেখান এতেও কোনো কাজ না হওয়াতে তিনি প্রোকৌশল জনাব মো: শহিদ উল্লাহ এবং তার পরিবারকে নানাভাবে হুমকি দেন। এমনকি মারধরের ঘটনাও ঘটেছে বলে জানা যায়। এই ঘটনায় প্রকৌশল জনাব মো: শহিদ উল্লাহর স্ত্রী মোসা: নাছিমা বেগম বলেন, ‘আমরা অনেকবার পুলিশের শরনাপন্ন হয়েছি। কিন্ত পুলিশ সাধারণ ডায়েরি করে রেখেছে, আর বার বার বলেছে আমরা বিষয়টা তদন্ত করে দেখবো।’

এদিকে প্রকৌশল মো: শহিদ উল্লাহর  অপর পুত্র নাইমুর রহমান সজীবের বিরুদ্ধেও একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত পরিচয়ের কতিপয় যুবক সজীবের প্রাণ নাশের হুমকিও দিয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে নাইমুর রহমান সজীব বর্তমানে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছে। নাছিমা বেগম বলেন, আমার এক ছেলে পলাতক, অপর ছেলে ও স্বামী কারাগারে। আমি অসহায় হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছি কিন্তু ন্যায় বিচার পাচ্ছি না। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও প্রশাসনের কাছে এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী-সন্তানের মুক্তির জন্য জোর দাবি জানান।

কুমিল্লায় মিথ্যা মামলায় পিতা-পুত্র আটকের বর্ণনা দেন ভুক্তভোগী নাসিমা বেগম (সূত্র এনটিভি)

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2016 Paprhi it & Media Corporation
Developed By Paprhihost.com
ThemesBazar-Jowfhowo